কলা নিয়ে ছবি পোস্ট করে সমালোচনার মুখে শ্রীলেখা!

পরনে লাল রঙের টি-শার্ট। ঘামে ভেজা শরীর। মেকআপবিহীন মুখে উঁকি দিয়েছে মুখের দাগ। ধারণা করা হচ্ছে, সদ্য জিম করেছেন তিনি। তার হাতে অর্ধেক ছোলানো কলা। ব্যাকগ্রাউন্ডে বাজছে ‘কেয়ামত সে কেয়ামত তক’ সিনেমার জনপ্রিয় একটি গান। ভারতীয় বাংলা সিনেমার বিতর্কিত অভিনেত্রী শ্রীলেখা মিত্র তার ফেসবুকে একটি পোস্ট করেছেন। তাতে এমন লুকে ধরা দিয়েছেন তিনি।

এ ছবির ক্যাপশনে শ্রীলেখা লিখেছেন— ‘এই পোস্টে দু’রকম মানে করিনি। সুস্থ মস্তিষ্কর জন্য রোজ কলা খান। লৌহ-নারী/পুরুষ তৈরি হন।’ বরাবরের মতো এ পোস্ট দেওয়ার পরও শুরু হয়েছে আলোচনা। কমেন্ট বক্সে ভেসে বেড়াচ্ছে নানারকম মন্তব্য।

কলকাতার পরিচালক অনীক দত্ত লিখেছেন, ‘প্রশ্ন: কলা কেন একাকী? উত্তর: কারণ এটি কলা (অকেলা)। তবে যাদের নোংরা চিন্তা-ভাবনা তারা এই পোস্টটিকে অন্যভাবে দেখবে।’ নির্মাতা পরামিতা মুন্সী শ্রীলেখার ‘সেন্স অব হিউমার’-এর প্রশংসা করেছেন। নেটিজেনদের একজন লিখেছেন, ‘সব ক্যালশিয়াম তো ছবির ক্যাপশনেই রয়েছে।’ কেউ কেউ এ ছবি নিয়ে ট্রোলও করছেন। তবে শ্রীলেখার পরিষ্কার জবাব— ‘এই ছবি মুছব না।’

বছরজুড়ে আলোচনায় থাকেন শ্রীলেখা মিত্র। ঠোঁটকাটা স্বভাবের শ্রীলেখা কিছুদিন আগে অভিনেত্রী স্বস্তিকা মুখার্জিকে আক্রমণ করে মন্তব্য করেছিলেন। এ নিয়ে শুরু হয়েছিল তুমুল আলোচনা। তার কিছুদিন আগে নিজের জন্মদিন উপলক্ষে বাড়িতে ঘরোয়া মদ-পার্টির আয়োজন করেছিলেন। সেই পার্টিতে মদ খাওয়ার ভিডিও সোশ্যাল মিডিয়ায় পোস্ট করে বিতর্কের মুখে পড়েছিলেন তিনি। এ নিয়েও জলঘোলা কম হয়নি।

রাজনৈতিক মঞ্চ বা মিছিলে কোথাও দেখা যায় না শ্রীলেখা মিত্রকে। বর্তমান ক্ষমতাসীন দলের সঙ্গেও তাল মিলিয়ে চলেন না। সম্প্রতি শ্রীলেখা দাবি করেন, এজন্য তার হাতে কাজ নেই। আপাতত স্বল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র নির্মাণে মন দিয়েছেন এই অভিনেত্রী। তৈরি করছেন অ্যান্থোলজি। ‘এবং ছাদ’-এর পর তৈরি করবেন ‘এরপর বারান্দা’, ‘তারপর বেডরুম’, ‘অতঃপর বাথরুম’।